মধ্যরাতে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ও মির্জা আব্বাস গ্রেফতার

বিডি নিউজ২৩: বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ও দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাসকে বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত সোয়া তিনটার দিকে আটক করেছে পুলিশ।

 

বিএনপির চেয়াপারসনের প্রেসউইং সদস্য শামসুদ্দিন দিদার ও বিএনপির মিডিয়া সেলের সদস্য শায়রুল কবির খান সারাবাংলাকে এ তথ্য জানিয়েছেন।

 

বৃহস্পতিবার রাত ৪ টা ১২ মিনিটে ক্ষুদে বার্তায় সারাবাংলাকে শামসুদ্দিন দিদার জানান- রাত সোয়া ৩ টার দিকে মির্জা আব্বাসকে তার বাসা থেকে আটক করেছে গোয়েন্দা পুলিশ।

 

এরপর ভোর সোয়া ৬ টায় বিএনপির মিডিয়া সেলের সদস্য শায়রুল কবির খান মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের স্ত্রী রাহাত আরা বেগমের বরাত সারাবাংলাকে জানান- ডিবি পুলিশ সদস্যরা রাত তিনটার দিকে উত্তরার বাসায় গিয়ে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরকে আটক করছে।’

 

সকাল ১০ টায় শায়রুল কবির খান জানান- মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ও মির্জা আব্বাসকে ডিবি কার্যালয়ে রাখা হয়েছে হয়েছে বলে জানতে পেরেছেন তিনি।

 

৯টি বিভাগীয় সমাবেশ শেষে শনিবার (১০ ডিসেম্বর) ঢাকায় গণসমাবেশ করার কথা ছিল বিএনপির। তারা নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে এই সমাবেশ করতে চেয়েছিল। কিন্তু সেখানে অনুমতি না দিয়ে তাদেরকে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সমাবেশ করার অনুমতি দেয় পুলিশ। তবে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে নয়, নয়াপল্টনেই সমাবেশ করার বিষয়ে অনড় অবস্থান জানান বিএনপির নেতারা।

 

এই সমাবেশ কোথায় হবে, তা নিয়ে বিতর্ক-আলোচনার মধ্যে বুধবার বিকেলে নয়াপল্টনে পুলিশের সঙ্গে বিএনপির নেতা-কর্মীদের ব্যাপক সংঘর্ষ হয়। সংঘর্ষে মকবুল আহমেদ নামে মিরপুর ৫ নং ওয়ার্ড স্বেচ্ছাসেবক দলের যুগ্ম সম্পাদক নিহত হন, আহত হন অর্ধশতাধিক ব্যক্তি। এ সময় গ্রেফতার করা হয় বিএনপির চার শতাধিক নেতা-কর্মীকে।

 

এর পর গণসমাবেশের স্থান নিয়ে বৃহস্পতিবার রাতে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) সঙ্গে বৈঠক করে বিএনপি। বৈঠকে নয়াপল্টনের বিকল্প হিসেবে মিরপুর বাংলা কলেজ মাঠ অথবা কমলাপুর স্টেডিয়াম ব্যবহারের ব্যাপারে একমত হয় বিএনপি এবং ডিএমপি।

 

বৈঠকে অংশ নেওয়া বিএনপির আইন বিষয়ক সম্পাদক ব্যারিস্টার কায়সার কামালের বরাত দিয়ে বৃহস্পতিবার রাতে শায়রুল কবির খান সারাবাংলাকে বলেন, ‘মিরপুর কলেজ মাঠ এবং কমলাপুর স্টেডিয়ামকে বিকল্প ভেন্যু হিসেবে ব্যবাহারের ব্যাপারে আলোচনা হয়েছে। এখন তারা (ডিএমপির সঙ্গে বৈঠকে অংশ নেওয়া বিএনপি নেতারা) ঢাকার গণসমাবেশের প্রধান উপদেষ্টা মির্জা আব্বাসের বাসায় যাচ্ছেন। সেখানে আলাপ-আলোচান শেষে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানানো হবে।

 

এদিকে বৈঠক শেষে বেরিয়ে যাওয়ার সময় বিএনপির প্রতিনিধি দলের সদস্য দলটির ভাইস চেয়ারম্যান বরকত উল্লাহ বুলু সাংবাদিকদের বলেন, ‘মিরপুর কলেজ মাঠ অথবা কমলাপুর স্টেডিয়ামের গণসমাবেশ করবে বিএনপি।’

 

এ সময় ডিএমপির অতিরিক্ত কমিশনার হারুনুর রশীদ গণামধ্যমকে বলেন, ‘কমলাপুর স্টেডিয়াম অথবা বাংলা কলেজ মাঠে সমাবেশ করার ব্যাপারে দুই পক্ষ একমত। ১০ তারিখের সমাবেশের জন্য ডিএমপির পক্ষ থেকে বিএনপিকে সহায়তা করা হবে। তাবে যারা গ্রেফতার হয়েছেন, তাদের ব্যাপারটি আইন অনুযায়ী ফায়সালা হবে।

 

এর পর রাত ১০টার দিকে মাঠ পরিদর্শনের জন্য বিএনপির একটি টিম কলমালাপুর স্টেডিয়ামে এবং আরেকটি টিম মিরপুর বাংলা কলেজ মাঠে যান। মাঠ পরিদর্শন শেষে সমাবেশের স্থান সম্পর্কে শুক্রবার চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানানোর কথা ছিল বিএনপির। এর আগেই দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এবং সমাবেশ ব্যবস্থাপনা কমিটির উপদেষ্টা ও বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাসকে আটক করা হলো।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *