• সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪, ০৫:৪১ অপরাহ্ন
শিরোনাম
রাজশাহীর পুঠিয়ায় পহেলা বৈশাখ-১৪৩১ শুভ বাংলা নববর্ষ উদযাপন রাজশাহীর পুঠিয়ায় বিয়ের দাওয়াত খেতে এসে পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু ঈদ পূর্ণমিলন এস.এস.সি ১৯৯৯ বনাম ২০০০ প্রীতি ক্রিকেট টুর্ণামেন্ট অনুষ্ঠিত রাজশাহীর পুঠিয়ায় বিধবা নারীর বস্তাবন্দি লাশ উদ্ধার দেশবাসীকে ঈদের শুভেচ্ছা জানালেন এ্যাডঃ জালাল উদ্দীন উজ্জ্বল বাগমারা বাসিকে ঈদুল ফিতরের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক সোহেল রানা বাগমারাবাসীকে পবিত্র ঈদুল ফিতরের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন, এমপি আবুল কালাম আজাদ ম্যানেজার নেজামকে উদ্ধার করে পরিবারের নিকট ফিরিয়ে দিয়েছে র‍্যাব দুই হাতুড়ির দাম ১ লাখ ৮২ হাজার, দুটি পাইপ কাটারের দাম ৯২ লাখ টাকা নেশা থেকে ফেরাতে না পেরে কুড়াল দিয়ে সন্তানকে কুপিয়ে হত্যা

রাজশাহীতে ওসি-এএসপির নাম ভাঙ্গিয়ে এক এসআই এর চাঁদাবাজি!

সংবাদদাতা:
সংবাদ প্রকাশ: বুধবার, ৩০ নভেম্বর, ২০২২
রাজশাহীতে ওসি-এএসপির নাম ভাঙ্গিয়ে এক এসআই এর চাঁদাবাজি!
রাজশাহীতে ওসি-এএসপির নাম ভাঙ্গিয়ে এক এসআই এর চাঁদাবাজি!

মোস্তাফিজুর রহমান জীবন রাজশাহী

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ রাজশাহীর বাগমারা থানার, বিকাশ প্রতারণার মামলাকে পুঁজি করে উপ-পরিদর্শক (এসআই) আল-ইমরানের ধারাবাহিক চাঁদাবাজি ও হয়রানির প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন করেছে ভুক্তভুগী আরাফাত সাইদ। আরাফাত বাঘা উপজেলার বলিহার (হাজিপাড়া) গ্রামের আফতাব হোসেনের ছেলে।

 

বুধবার (৩০ নভেম্বর) দুপুর ১২.৩০ মিনিটে রাজশাহী বরেন্দ্র প্রেসক্লাবে উপস্থিত হয়ে ভুক্তভোগী আরাফাত তার লিখিত বক্তব্যে জানান, আমি একজন এইচএসসি পরীক্ষার্থী। বর্তমানে আমার পরীক্ষা চলছে। গত ১০ জানুয়ারি ২০২২ সালে বাগমারা থানায় ২০১৮ সালের ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে অজ্ঞাত আসামী উল্লেখ করে একটি প্রতারণার মামলা রুজু হয়। যার মামলা নং ১০/২২। পরবর্তীতে সেই মামলায় তদন্তপুর্বক কয়েকজনের নাম উল্লেখ করে আসামি করে থানা পুলিশ। যাদের অনেকের বাড়ি আমার এলাকায়। আসামীর বাড়ি আমার বাড়ির পাশে এবং সমবয়সী হওয়াতে উক্ত মামলার তদন্তকারী অফিসার এসআই আল-ইমরান সেই আসামীর কাছ থেকে মোটা অংকের টাকা নিয়ে সেই জায়গায় আমাকে আসামি করবে বলে বিভিন্ন মাধ্যমে ভয় ভিতি প্রদর্শন করছেন। এছাড়াও পর পর ২ দিন মাঝরাতে আমার বাড়িতে এসে বিভিন্নভাবে ভয়ভীতি প্রদর্শন করে এবং মোটা অংকের টাকা দাবি করে। টাকা না দিলে আমাকে বিভিন্ন মিথ্যা মামলায় ফাঁসানোর হুমকি দেয়। এসআই আল ইমরান ইতোমধ্যে আমার এক পরিচিতের মাধ্যমে বলেন, দাবিকৃত টাকা না দিলে আমার এইচএসসি পরীক্ষা দেওয়ার আগেই গ্রেফতার করবেন। মামলার এজাহারে নাম না থাকলেও গ্রেফতার কৃত আসামীদের কাছ থেকে স্বীকারোক্তি নিয়ে আমাকে যে কোন সময় আটক করতে পারবেন বলেও হুমকি দিয়েছেন। তিনি আরও বলেন, আমার নামে দেশের কোথাও কোন মামলাও নাই। তারপরও বাগমারা থানার এসআই আল-ইমরান আমার পরিবারের কাছ থেকে বার বার ফোন দিয়ে এডিশনাল এসপি এবং বাগমারা থানার ওসি সহ ৩ জন কর্মকর্তাকে দেয়ার কথা বলে টাকা দাবি করছেন। সর্বশেষ ২৬ নভেম্বর রাত ১০ টা দিকে এসআই আল ইমরানের ব্যক্তিগত মোবাইল নাম্বার (০১৭৫২৪০৪৬১২) থেকে আমার শশুর আসাদুল ইসলামের (০১৮১৬৭০০১৮৩) নাম্বারে ফোন করে ৪০ হাজার টাকা ফোনে বিকাশের মাধ্যমে চান। টাকা না দিলে উক্ত মামলায় আমার নাম ঢুকিয়ে দিবে বলে হুমকি দিচ্ছে এবং পরীক্ষা বানচালের চেষ্টা করছেন। আমার পরীক্ষা বাতিলসহ নানা ভয়ভীতির কারণে পরিবারের লোকজন খুব চিন্তিত। এমতাবস্থায় আপনাদের মাধ্যমে আমার পরিবারের নিরাপত্তা, সুষ্ঠুভাবে পরীক্ষা প্রদান ও দোষি এসআই এর সুবিচার প্রার্থনাসহ শাস্তি কামনা করছি। 

 

উল্লেখ, উক্ত মামলার বাদী বাগমারা উপজেলার ঝিকড়া (কুদাপাড়া) গ্রামের মকছেদ আলীর স্ত্রী মোঃ বেদেনা বিবি (৩০)। পরবর্তীতে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে এই মামলা সকল আসামীদের নিকট থেকে মোটা অংকের টাকা নিয়েছেন মামলার তদন্তকারি কর্মকর্তা এসআই আল ইমরান।

 

জানতে চাইলে অভিযুক্ত এস আই আল ইমরান বলেন, সংবাদ সম্মেলন হলে তো আমার আর বক্তব্য দেওয়ার কিছুই নাই। পরে আপনাদের সঙ্গে দেখা করে কথা বলবো বলে ফোন কেটে দেন।

 

এ বিষয়ে জেলা পুলিশের মিডিয়া মুখপাত্র অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ইফতেখায়ের আলম বলেন, প্রাথমিকভাবে ঘটনার সত্যতা পাওয়ায় তাৎক্ষণিকভাবে অভিযুক্ত এস আইকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। বরখাস্ত এস আইকে পুলিশ লাইনে ক্লোজ করা হয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো খবর

Recent Comments

No comments to show.