• রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৮:৪২ অপরাহ্ন
শিরোনাম
বাঘায় সাংবাদিক নির্যাতনের প্রতিবাদে মানববন্ধন, বিএমএসএস’র নিন্দা প্রকাশ রাজশাহীর বাগমারা থেকে চাঁদাবাজ চক্রের মূলহোতা, গ্রেফতার করেছে ৱ্যাব-৫ আরএমপির পুলিশ কমিশনারসহ ৬ পুলিশ সদস্য পেলেন বিপিএম-পিপিএম পদক রাজশাহীর বাঘায় সাংবাদিককে হাত-পা বেঁধে নির্যাতন থানায় অভিযোগ প্রশাসনের উপর ক্ষোভ ঝাড়লো সাংবাদিকের উপর হত্যার হুমকি, থানায় অভিযোগ বিনা প্রতিদ্বন্দ্বীয় মেয়র হতে চলেছেন শায়লা পারভীন: তাহেরপুর পৌর নির্বাচন রুয়েটে যথাযোগ্য মর্যাদায় মহান শহীদ দিবস ও আর্ন্তজাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত পুঠিয়ায় সেভ লাইফ রক্তদান সংস্থার ৬ষ্ঠ প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী ও মাতৃভাষা দিবস পালিত পুঠিয়ায় হাট পাহারাদারের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার এলাকাবাসীর মাঝে অন্য গুঞ্জন প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ

সুনামগঞ্জে বড় ভাইয়ের সাবলের আঘাতে ছোট ভাই নিহত

সংবাদদাতা:
সংবাদ প্রকাশ: শনিবার, ২৬ নভেম্বর, ২০২২
সুনামগঞ্জে বড় ভাইয়ের সাবলের আঘাতে ছোট ভাই নিহত
সুনামগঞ্জে বড় ভাইয়ের সাবলের আঘাতে ছোট ভাই নিহত

দোয়ারাবাজার প্রতিনিধিঃ সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজার উপজেলার কাঠালবাড়ি গ্রামে পারিবারিক জমি নিয়ে পারিবারিক কলহের জেরে বড় ভাইয়ের লোহার সাবলের আঘাতে ছোট ভাইয়ের মৃত্যু হয়েছে। এসময় আহত হয়েছেন আরও ৩ জন। নিহত হিরন মিয়া (৪২)। সে দোয়ারাবাজার উপজেলার বোগলাবাজার ইউনিয়নের কাঠালবাড়ি গ্রামের সুরুজ আলীর ছেলে।

 

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, দোয়ারাবাজার উপজেলার কাঠালবাড়ির গ্রামের সুরুজ আলীর ৩ ছেলের মধ্যে পারিবারিক জমি নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলছিল। শুক্রবার সকালে বাড়ির পাশে পুকুরে তাদের মেজো ভাই নূর মোহাম্মদ মিল্টন মাছ ধরতে ছিলেন এসময় বড় ভাই রিপন মিয়া ও তার স্ত্রী রোকসানা বেগম বাধা দিলে ৩ ভাইয়ের মধ্যে কথা-কাটাকাটি হয়। এসময় ছোট ভাই হিরন মিয়া তার বড় ভাইর স্ত্রী রোকসানা বেগমকে কাঠ দিয়ে মাথায় বাড়ি মারলে মাথা ফেটে যায়। 

 

পরে ৩ ভাই ও তাদের স্ত্রীরা সংঘর্ষে জড়ান। এসময় বড় ভাই রিপন মিয়া লোহার সাবল দিয়ে ছোট ভাই হিরন মিয়ার পেটে ঘা দিয়ে গুরুতর আহত হয়ে মাঠিতে পড়ে যান। পরে তাকে সিলেট ওসমানী হাসপাতালে নিয়ে গেলো শুক্রবার রাত ২ টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় হিরন মিয়ার মৃত্যু হয়। এসময় আহত হন আরও ৩ জন।

 

দোয়ারাবাজার থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) দেবদুলাল ধর সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, পারিবারিক ঝামেলা নিয়েই তাদের ভাই ভাবীদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়, এসময় বড় ভাই লোহার সাবল দিয়ে ছোট ভাই হিরন মিয়াকে পেটে আঘাত করলে সে গতকাল রাতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। বাকীরাও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন। এখনও কোনো অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো খবর

Recent Comments

No comments to show.