রাজশাহীর ইউসুফপুর পাওনা টাকা চাইতে গেলে হামলার শিকার

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ রাজশাহীর ইউসুফপুর ইউনিয়নের বেলঘরিয়া গ্রামের মৃত মজিবুর রহমানের ছেলে মজনু একই এলাকার নজরুলের স্ত্রী জুলেখা বেগমের কাছ থেকে পাওনা টাকা চাইতে গেলে উল্টো টাকা না দিয়ে হামলা চালায় জুলেখা বেগম তার মেয়ে ও জামাই।

 

মজনু আহমেদ এর অভিযোগ সুত্রে জানাযায়, জুলেখা বেগম এর কাছ থেকে মোট সাত লক্ষ টাকা পাবে বলে ইউসুফপুর ইউনিয়নে চেয়ারম্যান বরাবর অভিযোগ করেন। অভিযোগের বিষয়ে উভয় পক্ষের উপস্থিতে বিবাদী জুলেখা বেগম টাকা পাওয়ার বিষয় শিকার করেন। এবং চেয়ারম্যান শফিউল আলম রতন ও শালিশী বোর্ডের সকলের উপস্থিতে 

 

তিন’শ টাকার নন জুটিশিয়াল ষ্ট্যাম্প লিখিত করে পাওনা টাকা পরিশোধ করার জন্য সময় নির্ধারন করে দেন। নির্ধারিত সময়ে কিছু টাকা পরিশোধ করলেও এখনো ৩ লক্ষ ৯৭ সাতানব্বই হাজার টাকা পাওনা রয়েছে। পাওনা টাকা চাইতে গেলে উল্টো জুলেখা বেগম তার দুই মেয়ে নাসরিন আক্তার বিথী ও সাথী জামাই মালেক ওরফে সবুজ বার বার হামলা চালায়। এই হামলার ভিডিও সামাজিক মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। হামলাকারীরা হাতে লোহার রড,রামদা,ছুরি নিয়ে বিভিন্ন সময়ে ভয়ভীতি প্রদর্শন করে আসছে। বর্তমানে মজনু ও তার পরিবার নিরাপত্তা হীনতায় ভুগতেছেন।

 

এবিষয়ে জানতে চাইলে ইউসুফপুর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান শফিউল আলম রতন জুলেখা বেগম এর কাছ থেকে মজনু আহমেদ টাকা পাওয়ার বিষয় শিকার করে বলেন,বিচার শালিশের সকলের উপস্থিতে লিখিত করে দেওয়া হয়েছিল সেখানে বিস্তারিত লিখা আছে। 

 

এবিষয়ে জানতে চাইলে আর.এম.পি কাটাখালী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সিদ্দিকুর রহমান বলেন,এবিষয়ে কোন অভিযোগ দেননি অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে ব্যাবস্থা গ্রহন করা হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *