রাজশাহী জেলা ছাত্রলীগ সভাপতির বিরুদ্ধে অপপ্রচার রাজনৈতিক প্রতিহিংসা

নিজস্ব প্রতিবেদক: রাজশাহী জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সাকিবুল ইসলাম রানাকে জড়িয়ে সাম্প্রতিক বিভিন্ন অনলাইন নিউজ পোর্টালে ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যে অপপ্রচার করছে তা রাজনৈতিক প্রতিহিংসা মুলক বলে দাবি করেছেন রাজশাহী জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি সাকিবুল ইসলাম রানা। রাজনৈতিক লবিং গুপিং এর কারনে এমন প্রতিহিংসা মূলক মিথ্যা অপপ্রচারের তিব্র প্রতিবাদ জানিয়েছেন জেলা ছাত্রলী সভাপতি।

 

রোববার গনমাধ্যমে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে তার বিরুদ্ধে রাজনৈতিক প্রতিহিংসা মুলক প্রতিপক্ষের বিভিন্ন অপপ্রচারের প্রতিবাদ ও নিন্দা জানায় তিনি।

 

বিজ্ঞপ্তিতে আরো জানানো হয়, সাম্প্রতিক রানাকে বি এন পির ছাত্র সংগঠনের সাথে জড়িয়ে যে রাজশাহী কলেজ মুসলিম ছাত্রাবাসের ছাত্রদলের কমিটির একটি প্যাডে ৬ নাম্বারে রানার নাম দিয়ে এডিটিং করে অপপ্রচার করছে একটি চক্র। ছাত্রদলের ওই কমিটির প্যাডে ৬ নাম্বারে প্রতিপক্ষরা নোংরামি করে সপুার এডিটিং করে ৬ বছর আগে ছাত্রদল নেতা হিসাবে রানাকে জাহির করার চেস্টা করছে চক্রান্ত মূলক ভাবে। এমন নেক্কার জনক অপপ্রচারের তিব্র প্রতিবাদ জানায়। এর মধ্যে ওই ছাত্রদলের কমিটির অরিজিনাল কপি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। সেখানে ৫ সদস্য বিশিষ্ট ছাত্রদলের কমিটিতে তাদের নাম রয়েছে। অপরদিকে, বিএনপি নেতা মিনুর পিছনে জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি রানার ছবি সুপার এডিটিং করে বিভিন্ন গনমাধ্যম কর্মীদের দিয়ে সংবাদ প্রচার করছে তা রাজনৈতিক প্রতিহিংসা মুলক। এমন ডিজিটাল অপপ্রচার কারিদের বিরুদ্ধে দ্রুত আইনগত ব্যবস্থা গ্রহনের প্রস্তুতি প্রক্রিয়াধিন রয়েছে।

 

রাজশাহী জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি সাকিবুল ইসলাম রানা বলেন, আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছে, স্বাধীনতা বিরোধী চক্র। বি এন পির ছাত্রসংগঠনের সাথে জড়িত থাকার বিষয়টি পুরোটাই মিথ্যা। বাংলাদেশ ছাত্রলীগ, নেতা মোদের শেখ মুজিব, এই স্লোগান বুকে ধারণ করে বুদ্ধি হবার পর থেকেই ছাত্রলীগের রাজনীতি করে আসছি। তাঁরাই আমার সাথে ষড়যন্ত্র করছে যাদের ভেতরে বঙ্গবন্ধুর আদর্শ নেই। বাবা-চাচাদের শিক্ষা ও তাঁদের পাশে থেকে ছোট থেকেই দেখে আসছি তারা বঙ্গবন্ধুর আদর্শ বুকে ধারণ করে রাজনীতি করে আসছে। তাঁদের শিক্ষায় আজ আমি সফল হয়ে রাজশাহী জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি হিসেবে নেতৃত্ব দিচ্ছি।

 

রানা বলেন, ২০১৩ সালে এইচএসসি পাস করে ২০১৪ সালে বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ে আইন ও মানবাধিকার বিভাগের সম্মান বর্ষের ছাত্র হিসাবে ভর্তি হই। ২য় সেমিস্টারের ফাইনাল পরিক্ষার পূর্বে রাজশাহী কলেজে পরিক্ষা দিয়ে অনার্স ১৪-১৫ সেসনে রাজশাহী কলেজে ব্যবস্থাপনা বিভাবে ভর্তি হই। সেই সময় নগর ছাত্রলীগের সম্পাদক রাজিব ভাই এর হাত ধরে মুসলিম হোস্টেলে থাকা। রাজশাহী কলেজ শাখা ছাত্রলীগের রাজনিতিতে সক্রিয় ছিলাম সেই সময় ও রাজশাহী জেলা ছাত্রলীগের সদস্য ছিলাম।

 

তিনি আরো বলেন, আমার পরিবার জন্মলগ্ন থেকে আওয়ামী লীগের রাজনিতির সাথে জড়িতো। জামাত-বিএনপি সরকারের সময় আওয়ামী লীগ করার জন্য নির্যাতনের শিকার হয়েছে আমার পরিবার। জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি নির্বাচিত হওয়ার পর থেকেই প্রতিপক্ষ একটি চক্র রাজনৈতিক প্রতিহিংসা মুলক আমাকে জড়িয়ে বিভিন্ন অপপ্রচার করে নোংরামি করছে। রাজনৈতিক ভাবে আমার সুনাম ক্ষুন্ন করতে এমন নেক্কার জনক অপপ্রচার একের পর এক চক্রটি করছে। এতে প্রিয় সংগঠন ছাত্রলীগের সুনাম ক্ষুন্ন করছে তরা। এমন অপপ্রচার কোন ভাবেই মেনে নেয়া যায় না। এসব অপপ্রচার কারির বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে ব্যবস্থা গ্রহন প্রক্রিয়াধিন রয়েছে বলে দাবি করেন তিনি রানা।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Related posts

Leave a Comment