রাজশাহী পুঠিয়া পৌর মেয়র মামুনের বিরুদ্ধে কলেজ ছাত্রীকে ধর্ষণের মামলা

রাজশাহী পুঠিয়া পৌর মেয়র মামুনের বিরুদ্ধে কলেজ ছাত্রীকে ধর্ষণের মামলা

নিউজ ডেস্ক: রাজশাহীর পুঠিয়ায় পৌর মেয়র ও সাবেক উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আল মামুন খানের বিরুদ্ধে এক কলেজ ছাত্রীকে ধর্ষণে অভিযোগ উঠেছে।

 

এ ঘটনায় সোমবার (৫ সেপ্টেম্বর) দুপুরে ভুক্তভোগীকে পুঠিয়া থানা পুলিশ রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে পাঠিয়েছেন। ঘটনার পর থেকে মেয়র আল মামুন পলাতক রয়েছেন।

 

এ বিষয়ে পুঠিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সোহরাওয়ার্দী হোসেন জানান, আসামীকে গ্রেপ্তারে তৎপরতা চলছে।

 

ভুক্তভোগী ওই নারী (২৪) পুঠিয়া সদর এলাকার একজন কাঠ ব্যবসায়ীর মেয়ে। মেয়র আল মামুন গন্ডগোহালী গ্রামের আলী হোসেনের ছেলে।

 

থানা সূত্রে জানা গেছে, বর্তমান মেয়র জোরপূর্ক ওই নারীর সঙ্গে একাধিকবার শারীরিক সম্পর্ক করেছে। এ ঘটনায় ভুক্তভোগি ওই নারী বাদী হয়ে রবিবার (৪ সেপ্টেম্বর) দিবাগত রাতে থানায় ধর্ষণের একটি অভিযোগ দেন। সোমবার সকালে অভিযোগটি মামলা নথিভুক্ত করা হয়েছে।

 

ভুক্তভোগি ওই নারীর ভাষ্যনুযায়ী, গত এক বছর আগে পৌরসভায় একটি চাকুরির জন্য মেয়রের কাছে গিয়েছিলেন তিনি। এরপর মেয়র বিভিন্ন প্রলোভনে নিয়মিত ধর্ষণ করে। এক পর্যায়ে তার এই অনৈতিক কাজে রাজী না হওয়ায় তিনি বিয়ের প্রলোভন দেন। সম্প্রতি মেয়র চাকুরি বা বিয়ে করবে না বলে জানিয়ে দেয়। বিষয়টি প্রতিবাদ করায় মেয়রের সন্ত্রাসী বাহিনীর লোকজন তাকে প্রাণনাশের হুমকি দেয়। একারণে তিনি থানায় ধর্ষণ মামলা দায়ের করেছেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Related posts

Leave a Comment