বাগমারা’য় উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে জাতীয় শোক দিবস পালিত

বাগমারা প্রতিনিধিঃ রাজশাহীর বাগমারায় উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে স্বাধীনতার মহান স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এঁর ৪৭ তম শাহাদাত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস পালন উপলক্ষে আলোচনা সভা ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

 

সোমবার সকাল ১০ টায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাইদা খানমের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন রাজশাহী-৪ (বাগমারা) আসনের সংসদ সদস্য, সড়ক পরিবহণ ও সেতু মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য ইঞ্জিনিয়ার এনামুল হক।

জাতীয় শোক দিবসের আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ইঞ্জিনিয়ার এনামুল হক বলেন, বাংলাদেশকে বিশ্বাস করলে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে মানতে হবে। দেশ এমনি এমনি স্বাধীন হয়নি। স্বাধীন বাংলাদেশের পেছনে জাতির পিতার অবদান অস্বীকার করার কিছু নেই। 

 

আওয়ামী লীগের হাত দিয়েই দেশের উন্নয়ন শুরু হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে প্রতিটি গৃহহীণকে ঘর প্রদান করা হচ্ছে। কাউকে না খেয়ে থাকতে হয় না। শিক্ষা, স্বাস্থ্য, যোগাযোগ, বিদ্যুৎ সহ প্রতিটি ক্ষেত্রে ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে। এটাই ছিল স্বাধীনতার চেতনা। এটাই ছিল স্বাধীনতার মূলমন্ত্র। দেশবাসী যখন জাতীয় শোক দিবস পালনে ব্যস্ত ঠিক সেই সময় বিএনপি ভূয়া জন্মদিন পালনে মেতেছে। বিএনপির সময় বাগমারা ছিল সন্ত্রাস আর জঙ্গীদের আস্তানা। ভয়ে লোকজন বাড়ি থেকে বের হওয়ার সাহস পেতো না। আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় আসার পর বাগমারায় রাস্তাঘাট সহ বিভিন্ন উন্নয়নে আমূল পরিবর্তন ঘটেছে।

 

তিনি আরো বলেন, নতুন প্রজন্মের মাঝে বঙ্গবন্ধু, স্বাধীনতার ইতিহাস তুলে ধরতে হবে। প্রশাসনের কর্মকর্তাদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, প্রশাসনিক কর্মকর্তারা কোন কর্তা ব্যক্তি না।

তাদেরকে জনগণের সেবায় কাজ করতে হবে। জাতির জনকের স্বপ্নকে বাস্তবায়ন করতে হবে। জনগনের সাথে মিশে যেতে হবে। তদের কথা শুনতে হবে। তবেই দেশের উন্নয়ন নিশ্চিত হবে। 

একাডেমিক সুপারভাইজার ড. মোহাম্মদ আব্দুল মুমীত এর পরিচালনায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, সহকারী কমিশনার (ভূমি) মাহমাদুল হাসান, বাগমারা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রবিউল ইসলাম, উপজেলা প্যানেল চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান আসাদ, উপজেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি ও মেয়র আব্দুল মালেক মন্ডল, সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ গোলাম সারওয়ার আবুল। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা প্রকৌশলী খলিলুর রহমান, চেয়ারম্যান আলমগীর হোসেন, অধ্যক্ষ হাতেম আলী সহ বিভিন্ন দপ্তরের প্রধান, জনপ্রতিনিধি, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক ও সর্বস্তরের জনগণ। আলোচনা শেষে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সহ সকল শহীদদের

আত্মার মাগফেরাত কামনা করে দোয়া অনুষ্ঠিত হয়।

 

সংবাদটি শেয়ার করুন

Related posts

Leave a Comment