• রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১০:১৭ অপরাহ্ন
শিরোনাম
বাঘায় সাংবাদিক নির্যাতনের প্রতিবাদে মানববন্ধন, বিএমএসএস’র নিন্দা প্রকাশ রাজশাহীর বাগমারা থেকে চাঁদাবাজ চক্রের মূলহোতা, গ্রেফতার করেছে ৱ্যাব-৫ আরএমপির পুলিশ কমিশনারসহ ৬ পুলিশ সদস্য পেলেন বিপিএম-পিপিএম পদক রাজশাহীর বাঘায় সাংবাদিককে হাত-পা বেঁধে নির্যাতন থানায় অভিযোগ প্রশাসনের উপর ক্ষোভ ঝাড়লো সাংবাদিকের উপর হত্যার হুমকি, থানায় অভিযোগ বিনা প্রতিদ্বন্দ্বীয় মেয়র হতে চলেছেন শায়লা পারভীন: তাহেরপুর পৌর নির্বাচন রুয়েটে যথাযোগ্য মর্যাদায় মহান শহীদ দিবস ও আর্ন্তজাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত পুঠিয়ায় সেভ লাইফ রক্তদান সংস্থার ৬ষ্ঠ প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী ও মাতৃভাষা দিবস পালিত পুঠিয়ায় হাট পাহারাদারের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার এলাকাবাসীর মাঝে অন্য গুঞ্জন প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ

ভোলায় ওসি সহ ৩৬ পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে নিহত আব্দুর রহিমের স্ত্রীর মামলা

সংবাদদাতা:
সংবাদ প্রকাশ: বৃহস্পতিবার, ৪ আগস্ট, ২০২২

বিডি নিউজ২৩/BD News23: গুলিতে নিহত আব্দুর রহিমের স্ত্রী খাদিজা বেগম ভোলা থানার ওসি আরমান হোসেনসহ ৩৬ জন পুলিশের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা করেছেন। নিহত স্বেচ্ছাসেবক দলের কর্মী আব্দুল রহিমের স্ত্রী খাদিজা বেগম বাদী হয়ে আদালতে মামলাটি করেন।

 

মামলায় ভোলা সদর মডেল থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি-তদন্ত) মো. আরমান হোসেন ও সদর মডেল থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. আনিস উদ্দিনসহ ৩৬ পুলিশ সদস্যের নাম উল্লেখ করা হয়েছে। এছাড়া মামলায় অজ্ঞাত আসামি করা হয়েছে আরও ২৫-৩০ জনকে।

 

বৃহস্পতিবার (৪ আগস্ট) দুপুরে ভোলা সদর উপজেলা সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটের বিচারক মোহাম্মদ আলী হায়দার কামালের আদালতে এ মামলা দায়ের করা হয়। মামলা নাম্বার এমপি ৪০৫/২২।

 

বাদী পক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট আমিরুল ইসলাম বাছেত এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

 

তিনি জানান, গত ৩১ জুলাই বিএনপির বিক্ষোভ সমাবেশে আবদুর রহিম নিহত হন। দলীয় কর্মসূচিতে অংশগ্রহণের পর পুলিশের গুলিতে তার মৃত্যু হয় দাবি করে নিহতের স্ত্রী বাদী হয়ে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামলাটি দাখিল করেন। ওই মামলায় ভোলা সদর মডেল থানার ওসি (তদন্ত) আরমান হোসেনসহ ৩৬ জনকে আসামি করা হয়েছে। আসামিরা সবাই পুলিশ সদস্য।

 

তিনি আরও জানান, তারা সুষ্ঠু বিচারের স্বার্থে পুলিশ ছাড়া অন্য কোনো সংস্থার মাধ্যমে মামলাটি তদন্ত করার দাবি জানান। বিচারক তাদের আরজি শুনে আগামী ৮ আগস্টের মধ্যে ময়নাতদন্ত রিপোর্ট ও লাশের সুরতহাল রিপোর্টসহ প্রয়োজনীয় নথিপত্র আদালতে দাখিলের আদেশ দেন।

 

উল্লেখ্য, লোডশেডিং ও জ্বালানি খাতে অব্যবস্থাপনার প্রতিবাদে পূর্বঘোষিত কর্মসূচির অংশ হিসেবে গত ৩১ জুলাই বিক্ষোভ সমাবেশ করে ভোলা জেলা বিএনপি। সমাবেশ চলাকালে পুলিশ ও বিএনপি নেতা-কর্মীদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়।

 

এ সময় গুলিতে স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতা আব্দুর রহিম নিহত হন। এ ঘটনায় বিএনপির আরও বেশ কয়েকজন নেতাকর্মী আহত হন। আহতদের মধ্যে জেলা ছাত্রদলের সভাপতি নুরে আলমও ছিলেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো খবর

Recent Comments

No comments to show.