শ্রীলঙ্কা নয়, ইউরোপ-আমেরিকার মতো হবে বাংলাদেশ: পরিবেশমন্ত্রী

বিডি নিউজ২৩/BD News23: পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তনবিষয়ক মন্ত্রী মো. শাহাব উদ্দিন বলেছেন, অনেকে বাংলাদেশ শ্রীলঙ্কার মতো হয়ে যাবে বলে সমালোচনা করেন। বাংলাদেশ শ্রীলঙ্কা নয়, ইউরোপ-আমেরিকার মতো একটি দেশ হবে। দেশের আগে যে অবস্থা ছিল, এখন আর তা নেই। গ্রাম-গঞ্জের চেহারা পাল্টে গেছে। ব্যাপক উন্নয়ন হচ্ছে। ২০৪১ সালে বাংলাদেশ উন্নত রাষ্ট্রে পরিণত হবে। সরকার সেই লক্ষ্যে কাজ চালিয়ে যাচ্ছে।আজ শুক্রবার মৌলভীবাজারের জুড়ী উপজেলা পরিষদ অডিটোরিয়ামে উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে উপজেলার ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর জীবনমান উন্নয়নে শিক্ষার্থী এবং অসচ্ছল পরিবার ও সংস্কৃতিসেবীদের অনুদানের চেক বিতরণ অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

 

প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী আরও বলেন, ‘বৈশ্বিক সংকটের কারণে বিশ্ববাজারে নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধি পেয়েছে। অন্যান্য দেশের তুলনায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে রেখেছেন। সরকারের পদক্ষেপের ফলে ইতোমধ্যে সয়াবিন তেলের দাম কমে এসেছে। এ ছাড়া, বিশ্ববাজারে তেল ও গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধির ফলে বর্তমানে বিদ্যুৎ উৎপাদনে সরকারকে বিপুল পরিমাণ ভর্তুকি দিতে হচ্ছে।’তিনি সবাইকে বিদ্যুৎ ব্যবহারে সাশ্রয়ী হওয়ার আহ্বান জানান।মন্ত্রী শিক্ষাবৃত্তির চেকপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে বলেন, ‘মাস্টার্স পাস করে চাকরির আশায় না থেকে অনেকে সবজি চাষ করে স্বাবলম্বী হয়েছে। লেখাপড়া করে সবজি চাষ করলে লজ্জা নেই। এতে আয়ের ব্যবস্থা হবে। পাশাপাশি, আরও ১০ জনের কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি হবে।’তিনি আরও বলেন, ‘উৎপাদন বৃদ্ধিতে ব্যাপকভাবে চাষাবাদ করতে কৃষকদের প্রয়োজনীয় সহায়তা প্রদান করছে সরকার। ইউরোপে চলমান যুদ্ধের কারণে বিশ্বে খাদ্য সংকট দেখা দিতে পারে, ভোজ্য তেল ও খাদ্যশস্য আমদানি কষ্টসাধ্য হয়ে উঠতে পারে। এজন্য বর্ষার পানি নেমে যাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে ভোজ্য তেলের জন্য সরিষার চাষ করতে হবে। একই জমিতে এরপর নির্দিষ্ট ধান চাষ করতে হবে। এজন্য সরকার প্রয়োজনীয় সহায়তা দেবে। কৃষি ও মৎস্য কর্মকর্তারা মাঠ পরিদর্শন করে খাদ্যশস্য ও মৎস্যের উৎপাদন বৃদ্ধিতে কৃষকদের প্রয়োজনীয় সহায়তা করবেন।’জুড়ী উপজেলা নির্বাহী অফিসার সোনিয়া সুলতানার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে জুড়ী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা এম, এ, মোঈদ ফারুক, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান রঞ্জিতা শর্মা, ভাইস চেয়ারম্যান রিংকু রঞ্জন দাশ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, অনুষ্ঠানে অসচ্ছল ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর ৩০টি পরিবারকে আর্থিক অনুদানের চেক এবং ৫০ জন শিক্ষার্থীর মাঝে শিক্ষা উপবৃত্তি বিতরণ করেন মন্ত্রী। কৃষি বিভাগের উদ্যোগে ২ হাজার কৃষকের মাঝে ৫ কেজি ধানের বীজ ও ২০ কেজি সার এবং মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের মাধ্যমে ২ জনকে সেলাই মেশিন দেওয়া হয়।এর আগে মন্ত্রী বন্যা পরবর্তী জনসাধারণের স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিতকরণে ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্পের উদ্বোধন করেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *