থাইল্যান্ডে সিগারেটের মতো গাজাকেও বৈধতা বিক্রি হচ্ছে খোলা বাজারে

বিডি নিউজ২৩

বিডি নিউজ২৩/BD News23: থাইল্যান্ডে গাঁজাকে বৈধতা দেয়ার পর পর্যটকদের ভিড় বেড়েছে। খাবার দোকান, মুদি দোকান, কসমেটিক দোকান সহ এখন প্রায় সব ধরনের দোকানে মিলছে গাঁজা। থাইল্যান্ডের সরকার গাঁজাকে বৈধতা দেবার পর ব্যাপক রমরমা ভাবে পুরো দেশজুড়ে বিক্রি হচ্ছে গাজা।

 

অনেক সিগারেট বিড়ি কোম্পানি গুলো ভ্যাট ফাঁকি দেওয়ার কারণে ইতিমধ্যে সেসব কোম্পানি বা ব্র্যান্ডের সিগারেট বিক্রি নিষিদ্ধ করেছে থাইল্যান্ড সরকার। থাইল্যান্ড সরকার মনে করছেন গাঁজা খোলা বাজারে বিক্রি করা ও সেবন করার কারণে তাতে সরকারের অনেক লাভ হবে।

 

গাঁজাকে বৈধতা দেয়ার পর থাইল্যান্ডে ভিড় বেড়েছে পর্যটকদের। এদের বেশিরভাগই পশ্চিমা নাগরিক। গেল সপ্তাহে এটিকে মাদকের তালিকা থেকে বাদ দেয় থাই সরকার। এরপর থেকেই বিভিন্ন পর্যটন কেন্দ্রে খাবারের দোকানের মতোই বাহারি দোকান সাজিয়ে বিক্রি হচ্ছে গাঁজা। স্থানীয়রা বলছে, এ বৈধতার কারণে নতুন মাত্রা পাবে থাইল্যান্ডের পর্যটন খাত। ট্রাভেল উইকলির এক নিবন্ধে বলা হয়েছে এ তথ্য।

 

এক গাঁজা সেবনকারী বলেন, এটা যে আমার জন্য কতোটা খুশির সংবাদ তা বলে বুঝাতে পারবো না। মনে হচ্ছে যেন স্বপ্ন সত্যি হল। দেশটির আরেক বাসিন্দা বললেন, আমার মনে হয় সবকিছুর আরও উন্নতি হবে। পর্যটন খাত বিশেষ করে। অনেক পর্যটক সৈকতে বসে গাঁজার স্বাদ নেয়ার সুযোগ হারাতে চাইবেন না।

 

ব্যাংককসহ থাইল্যান্ডের বিভিন্ন এলাকায় প্রতি গ্রাম গাঁজা বিক্রি হচ্ছে ২০ ডলার করে। আছে রকমফেরও। নাম এবং গন্ধভেদে একেক ধরনের গাঁজার স্বাদও একেক রকম। কোনো কোনো দোকানে তো রীতিমতো মেন্যু কার্ড খুলে বিক্রি হচ্ছে গাঁজা।

 

কেউ কেউ এটিকে বড় সুযোগ হিসেবেও দেখছেন। তাদের মতে, এর মাধ্যমে পর্যটন খাতে নতুন দ্বার উন্মোচন হলো। এদিকে, গাঁজা চাষ ও বিক্রির সাথে জড়িত থাকায় এতদিন যাদের শাস্তি দেয়া হয়েছিল, তাদের দেয়া হচ্ছে মুক্তি। কর্তৃপক্ষ বলছে, এ পর্যন্ত প্রায় ৩ হাজার কয়েদিকে মুক্তি দেয়া হয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Related posts

Leave a Comment