• সোমবার, ০২ অক্টোবর ২০২৩, ০৫:১৪ অপরাহ্ন
Headline
পুঠিয়ার ইউনিয়ন ভূমি অফিসগুলো যেনো ঘুষের স্বর্গ রাজ্য, ছাড় পায় না ভিক্ষুকও রংপুরে উইঘুর মুসলিম নির্যাতন ও চীনের আগ্রাসন বন্ধের দাবিতে মানববন্ধন নরসিংদীতে পরিক্ষা শেষে আর বাড়ি ফেরা হলো না এক এইচএসসি পরিক্ষার্থীর ফ্রিল্যান্সারদের ওপর কোনো কর আরোপ করা হয়নি: জুনাইদ আহমেদ পলক বাগমারায় এক আনসার ও তার ভাতিজা হেলালের অত্যাচারে অতিষ্ঠ গ্রামবাসি বিদেশ যেতে হলে খালেদা জিয়াকে আবার জেলে যেতে হবে, কোর্টে যেতে হবে হোটেলে ভাত খেয়ে ৩ লাখ টাকা বিল বাকি ছাত্রলীগ নেতার, থানায় অভিযোগ পাকিস্তানের বেলুচিস্তানে ঈদে মিলাদুন্নবীর জশনে জুলুসে বোমা হামলায় ৫০ অধিক নিহত প্রদেশটিতে ৩ দিনের শোক ঘোষণা করা হয়েছে। নিহতের সংখ্যা আরো অনেক বাড়তে পারে…. রাজশাহীর পুঠিয়ায় নানান আয়োজনে প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন পালন পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.)কে স্বাগত জানিয়ে পুঠিয়ার বানেশ্বরে র‌্যালী

পল্লীবিদ্যুতের সংযোগ বিচ্ছিন্ন করায় লাইনম্যানকে গাছে বেঁধে মারধর

Reporter Name
Update : বৃহস্পতিবার, ৭ জুলাই, ২০২২
BD News23
পল্লীবিদ্যুতের সংযোগ বিচ্ছিন্ন করায় লাইনম্যানকে গাছে বেঁধে মারধর

পল্লীবিদ্যুতের সংযোগ বিচ্ছিন্ন করায় লাইনম্যানকে গাছে বেঁধে মারধর

 

বিডি নিউজ২৩/BD News23: পল্লীবিদ্যুতের বকেয়া বিল চাওয়া ও সংযোগ বিচ্ছিন্ন করায় লাইন টেকনিশিয়ানকে গাছের সাথে বেঁধে বেধড়ক মারপিট করা হয়েছে। এ ঘটনায় পল্লীবিদ্যুতের উপ-ব্যবস্থাপক বাদী হয়ে থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন। ঘটনাটি ঘটেছে সিরাজগঞ্জের কাজীপুর উপজেলার সোনামুখী ইউনিয়নের হরিনাথপুর উত্তরপাড়ায়।

 

শনিবার বিকেলে থানায় দেয়া অভিযোগ ও সরেজমিন সূত্রে জানা গেছে, হরিনাথপুর উত্তর পাড়ার পাগাইলার ছেলে মকবুল হোসেনের নামে একটি বৈদ্যুতিক মিটার বিল গত তিন মাস ধরে বকেয়া ছিল।

 

পল্লীবিদ্যুতের নিয়মানুযায়ী গত শুক্রবার বিকেলে ওই লাইন বিচ্ছিন্ন করতে যান লাইন টেকনিশিয়ান আক্তার হোসেন ও মিটার রিডার বেলাল হোসেন। লাইন বিচ্ছিন্ন করতে গেলেই মকবুল হোসেন ও তাঁর লোকজন বাঁধা দেন। বিদ্যুৎ কর্মীদের নানা প্রকার গালমন্দ করতে থাকেন।

 

এক পর্যায়ে লাঠি দিয়ে আক্তার হোসেনকে পিটানী দেন মকবুল হোসেন। পরে মকবুলের স্বজনরা স্থানীয় মিদানীর পুত্র হেলাল উদ্দিন ও মজিবারের পুত্র শাজা এসে লাইন টেকনিশিয়ান আক্তারকে কাঁঠাল গাছের সাথে বেঁধে সবাই মিলে পিটানী দেন। পরে খবর পেয়ে কাজীপুর থানা পুলিশ বিদ্যুৎ কর্মীদের উদ্ধার করেন।

 

মকবুল হোসেনের স্ত্রী লিলি খাতুন বলেন, কারেনের লোক আইসা বিলের ট্যাহার জন্যে আমাদের গালিগালাজ করে। পরে কলম দিয়া ঘাও মারে আমার বেটাক। আমাক সড়কে ধেক্কা দিয়া ফাইলা দেয়।তারপর আমার স্বামী কারেনের লোকেক পেটন মারে। গাছের সাথে বেঁধে পিটানোর কথা অস্বীকার করলেও তাঁর মেয়ে মলি খাতুন বলেন, আমরা কাঁটোল গাছের সাথে বাঁইধা রাখছিলাম। পরে ছাইড়া দিছি।

 

কাজীপুর পল্লীবিদ্যুতের উপ-ব্যবস্থাপক আব্দুল্লাহ আল আমিন চৌধুরী জানান, নিয়মানুযায়ী সংযোগ বিচ্ছিন্ন করতে গেলে আমার লোকদের বেঁধে মারধর করা হয়। এ ঘটনায় কাজীপুর থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছি।

 

কাজীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শ্যামল কুমার দত্ত জানান, অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category

Recent Comments

No comments to show.