বিদ্যুৎ সংযোগ কাটতে যেয়ে গ্রাহকদের সাথে ব্যপক সংঘর্ষ আহত ৫, আটক-৫

Prothom alo news

বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করতে গিয়ে, গ্রাহকদের সাথে সংঘর্ষ, এ.জি.এম সহ আহত ৫, ১ ঘন্টা পর বিদ্যুতের অফিস সহায়কের লাশ উদ্ধার, থানায় মামলা, আটক-৫…More

বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করতে গিয়ে, গ্রাহকদের সাথে সংঘর্ষ, এ.জি.এম সহ আহত ৫, ১ ঘন্টা পর বিদ্যুতের অফিস সহায়কের লাশ উদ্ধার, থানায় মামলা, আটক-৫…More

 

বিডি নিউজ২৩/bd news23: বগুড়ার শিবগঞ্জের পল্লীতে অবৈধ বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করতে গিয়ে, গ্রাহকদের সাথে সংঘর্ষ, এ.জি.এম সহ আহত ৫ জন, নিহত ১, থানায় মামলা, আটক ৫।

 

ঘটনাটি ১১ জুন শুক্রবার আটমুল ইউনিয়নের ভাইয়ের পুকুর বাজার এলাকায় রাত ১১ টায় সংঘটিত হয়েছে।

 

এ ঘটনায় এজিএম রফিকুজ্জামান বাদী হয়ে শিবগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করেছে। মামলার প্রেক্ষিকে পুলিশ আটমূল ইউনিয়নের বড় বেলঘড়িয়া গ্রামের ইজার উদ্দিন এর ছেলে ইমরান কাজী (৩২), চন্দপুর গ্রামের জহুরুল ইসলাম এর ছেলে আতাউর রহমান (২৮), একই গ্রামের খাজা মিয়ার ছেলে বাবর আলী (২৭), পরনান্দপুর গ্রামের সাখাওয়াত হোসেন এর ছেলে আবু সাইদ (৫০) ও তার ছেলে সোহেল রানা (২৬) কে আটক করে।

 

থানার মামলা সূত্রে জানা যায়, উপজেলার আটমুল ইউনিয়নের পরমানন্দপুর গ্রামের সাকাওয়াত হোসেন এর ছেলে ভাইয়েরপুকুর বাজারের ব্যবসায়ী আবু সাইদ ও অপর ছেলে আব্দুল আলিম দীর্ঘদিন যাবৎ ভাইয়ের পুকুর বাজারে বসত বাড়িতে ও রেজাউল করিম এর একটি ক্যাবল নেটওয়ার্ক অফিস ঘরে অবৈধ বিদ্যুৎ সংযোগ নিয়ে বিদ্যুৎ ব্যবহার করে আসছে।

 

থানার মামলা সূত্রে আরো জানা যায়, এ খবর পেয়ে উপজেলার পল্লী বিদ্যুৎ পিরব সাব জোনাল অফিসের আওতায় উক্ত অফিসের জোনাল এজিএম রফিকুল জামান জানতে পারেন আবাসিক সংযোগকৃত বাড়ীতে অবৈধ ভাবে মিটার বাইপাস করে বিদ্যুৎ ব্যবহার করছে। এমন তথ্যের ভিত্তিতে পল্লী বিদ্যুৎতের একটি টিম এজিএম রফিকুজ্জামান এর নেতৃত্বে লাইনম্যান, মইন উদ্দিন, বিকাশ চন্দ্র সরকার, পিন্টু প্রামানিক, ফারুক হোসেন, আজিজুল হক, অফিস সহায়ক আব্দুল হান্নান ঘটনাস্থলে পৌঁছে অবৈধ বিদ্যুৎ ব্যবহারের অভিযোগ সংযোগটি বিচ্ছিন্ন করে। এতে আবাসিক ও ক্যাবল নেটকওয়ায়র এর সংযোগকৃত বিদ্যুৎতের ব্যবহারকারীদের সঙ্গে বাকবিতন্ডায় জড়িয়ে পড়ে। একপার্যেয় আব্দুল হালিম, আবু সাইদ, বুলবুল ইসলাম, সোহাগ, বিদ্যুৎ অফিসের লোকজনের উপর অতর্কিত ভাবে হামলা চালিয়ে বেধরক ভাবে মারপিট করে। এসময় অফিস সহায়ক আব্দুল হান্নান নিখোঁজ হয়। ঘটনার ১ ঘন্টার মধ্যে তার কোন খোঁজ না পাওয়ায় সহকর্মীরা তাকে খুঁজতে থাকে। পরে রাত্রী ১২টায় খবর পেয়ে পুলিশ ভাইয়ের পুকুরের অদূরে বাদলাদিঘী ধানক্ষেত থেকে তাকে অজ্ঞান অবস্থায় উদ্ধার করে। পরে তাকে শিবগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এ নিয়ে আসলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত্যু বলে ঘোষণা করেন।

 

এব্যাপারে পল্লী বিদ্যুৎ পিরব সাব জোনাল অফিসে জোনাল এজিএম রফিকুজ্জামান বলেন, আবু সাইদ ও আব্দুল আলিম এবং একটি ক্যাবল নেটওয়ার্ক ব্যবসায়ী রেজাউল করিম অবৈধ ভাবে মিটার বাইপাস করে বিদ্যুৎ ব্যবহার করছে। এমন সংবাদের ভিত্তিতে আমরা অবৈধ বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করার জন্য রাতেই বের হই। কিন্তু প্রতিপক্ষরা হঠাৎ করে আমাদের উপর আক্রমণ করে। এসময় আমাদের অফিস সহকারী নিখোঁজ হয়। পরে তার মৃত্যু দেহ পাওয়া গেছে।

 

এব্যাপারে বাড়ির মালিক সাইদ এর বাবা সাকাওয়াত হোসেন বলেন, আমার জানামতে বিদ্যুৎ বিল বকেয়া নেই। আমার ছেলেদের বাড়িতে অবৈধ সংযোগ নেওয়ার বিষয়টি ভিত্তিহীন। মিথ্যা মামলা দিয়ে আমার ছেলেদেরকে ফাঁসানো হচ্ছে।

 

এব্যাপারে শিবগঞ্জ থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) হাসমত উল্লাহ বলেন, সংবাদ পেয়ে রাতেই পুলিশ ফোর্স ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। রাত ২টায় আব্দুল হান্নানকে আটমূল ইউনিয়নের বাদলাদিঘী ধানক্ষেত থেকে অজ্ঞান অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে। পরে তাকে শিবগঞ্জ হাসপাতালে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত্যু বলে ঘোষণা করেন। মৃত দেহ উদ্ধার করে ময়দান তদন্তের জন্য শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করে। ময়না তদন্তের প্রতিবেদন পেলে মৃত্যুর আসল রহস্য উদঘাটন সম্ভব হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Related posts

Leave a Comment