• সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪, ০৬:৪৮ অপরাহ্ন
শিরোনাম
রাজশাহীর পুঠিয়ায় পহেলা বৈশাখ-১৪৩১ শুভ বাংলা নববর্ষ উদযাপন রাজশাহীর পুঠিয়ায় বিয়ের দাওয়াত খেতে এসে পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু ঈদ পূর্ণমিলন এস.এস.সি ১৯৯৯ বনাম ২০০০ প্রীতি ক্রিকেট টুর্ণামেন্ট অনুষ্ঠিত রাজশাহীর পুঠিয়ায় বিধবা নারীর বস্তাবন্দি লাশ উদ্ধার দেশবাসীকে ঈদের শুভেচ্ছা জানালেন এ্যাডঃ জালাল উদ্দীন উজ্জ্বল বাগমারা বাসিকে ঈদুল ফিতরের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক সোহেল রানা বাগমারাবাসীকে পবিত্র ঈদুল ফিতরের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন, এমপি আবুল কালাম আজাদ ম্যানেজার নেজামকে উদ্ধার করে পরিবারের নিকট ফিরিয়ে দিয়েছে র‍্যাব দুই হাতুড়ির দাম ১ লাখ ৮২ হাজার, দুটি পাইপ কাটারের দাম ৯২ লাখ টাকা নেশা থেকে ফেরাতে না পেরে কুড়াল দিয়ে সন্তানকে কুপিয়ে হত্যা

রাজশাহীর বাঘায় ন্যায্য মূল্যের আশায় রেকর্ড পরিমাণ সোনালি পাট চাষ

সংবাদদাতা:
সংবাদ প্রকাশ: মঙ্গলবার, ৩১ মে, ২০২২
প্রথম আলো
রাজশাহীর বাঘায় ন্যায্য মূল্যের আশায় রেকর্ড পরিমাণ সোনালি পাট চাষ

মিলন রাজ, বাঘা রাজশাহী: সোনালি আঁশ পাট। বাংলার ইতিহাস ঐতিহ্য-এর সাথে ওতপ্রোতভাবে ভাবে জড়িত পাট। কালের বিবর্তনে সেই গৌরব অনেকটাই ম্লান হয়ে যাচ্ছিল।

 

কিন্তু গত দু’বছর দাম ভালো পাওয়ায় কৃষকরা আবার পাট চাষে ঝুঁকেছেন। ন্যায্যমূল্য লাভ এবং উপজেলা কৃষি অফিসের তৎপরতায় বাঘা উপজেলায় এ বছর রেকর্ড পরিমাণ জমিতে পাটের আবাদ হয়েছে। বাঘা উপজেলার চকরাজাপুর, মনিগ্রাম, পাকুড়িয়া, গড়গড়ি ইউনিয়ের চর এলাকায় পাটের সবুজ পাতা বাতাসে দোল খাচ্ছে। ঠিক একই চিত্র বাউশা, বাজুবাঘা, আড়ানী ইউনিয়ন, বাঘা পৌরসভা, আড়ানী পৌরসভাতেও।

 

বাজুবাঘা ইউনিয়নের বড় ছয়ঘুটির পাট চাষী মোঃ আসাদুল ইসলাম জানান, দাম ভালো পাওয়ায় এ বছর গম কাটার পর পাটের বীজ বপণ করি। আশা করি ভালো ফলন পাবো।

 

উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা যায়, ২০২২-২৩ অর্থবছরে পাট আবাদের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছিল ৩০৩৫ হেক্টর এবং ফলন ৩৪৯০৩ মেট্রিক টন৷ কিন্তু গতবছর ভালো দাম পাওয়ায় কৃষকরা ব্যাপকভাবে পাট চাষ করেছেন, যা লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে প্রায় ১৫০০ হেক্টর বেশি।

 

বাঘা উপজেলা কৃষি অফিসার মোঃ শফিউল্লাহ সুলতান বলেন, এবছর বাঘা উপজেলায় ৪৫৬৫ হেক্টর জমিতে পাটের আবাদ হয়েছে, যা বিগত কয়েক বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ। আশা করি এবছর প্রায় ৫২০০০ মেট্রিক টন পাট উৎপাদিত হবে। এ ধার অব্যাহত থাকলে পাটের সোনালী ঐতিহ্য আবার ফিরে আসবে।

 

কৃষি সম্প্রসারণ অফিসার কামরুল ইসলাম বলেন, উন্নত পাটের জাত যেমন বিজেআরআই তোষা পাট-৮, বিএডিসি-১, বিজেআরআই দেশি পাট-৮ সহ জেআরও ৫২৪ জাত অত্র উপজেলায় চাষ হচ্ছে। পাটের আবাদ বৃদ্ধির লক্ষ্যে সরকারীভাবে বিনামূল্যে পাট বীজ ও সার বিতরণ করা হয়েছিল এবং আমদানি নির্ভরতা কমিয়ে বীজের প্রাপ্যতা সহজলভ্য করণের জন্য নাবী পাট বীজ উৎপাদনের বিশেষ প্রণোদনা কর্মসূচী বাস্তবায়িত হচ্ছে। পাট ও পাট বীজ উৎপাদন কলাকৌশল নিয়ে কৃষকদের প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো খবর

Recent Comments

No comments to show.