রাজশাহীতে মহিলা মেম্বার ধর্ষণের শিকার!

Prothom alo news

বিডি নিউজ২৩/BD News23: রাজশাহীর মোহনপুর উপজেলার জাহানাবাদ ইউনিয়ন পরিষদের সংরক্ষিত মহিলা আসনের এক (মেম্বারকে) দুইদিন যাবত আটকে রেখে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে।

 

এদিকে জরুরি নাম্বার ৯৯৯-এ ফোন করলে পুলিশ ওই নারী ইউপি সদস্যকে উদ্ধারের পর রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে (ওসিসি) ভর্তি করা হয়েছে।

 

এমন ঘটনার অভিযোগ এনে গত শুক্রবারে ওই ইউপি মহিলা সদস্য মোহনপুর থানায় স্থানীয় মুজিবুর রহমানসহ পাঁচজনকে আসামি করে একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেছেন।

 

মামলা সূত্রে জানা যায়, গত ১২ মে বুধবার রাত ৯টার দিকে মোহনপুর উপজেলার জাহানাবাদ ইউনিয়নের ধোরশা মোল্লাপাড়া গ্রামের মৃত সেফাতুল্লাহর ছেলে মজিবর রহমান (৪৭) ৪, ৫ ও ৬ নম্বর ওয়ার্ডের সংরক্ষিত আসনের বর্তমান নারী সদস্যকে (৪২) বিয়ের প্রলোভন দিয়ে নিজ বাড়িতে নিয়ে যায়। বুধবার ও বৃহস্পতিবার দুই দিন বাড়িতে আটকে রেখে তাকে একাধিকবার ধর্ষণ করে মজিবর রহমান।

 

 

 

শুক্রবার ভোর রাতে তাকে একটি ঘরে আটকে রেখে মজিবর রহমান পালিয়ে যায়। সকালে মজিবর রহমানের লোকজন নারী ইউপি সদস্যকে মারপিট করে বাড়ি থেকে বের করে দেয়। পরে স্থানীয়দের সহযোগিতায় ৯৯৯ নম্বরে ফোন করলে মোহনপুর থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে তাকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়। আসামি মজিবর রহমানসহ অন্য আসামিরা ইউপি সদস্যর কাছ থেকে ২ লাখ ৪ হাজার টাকা ছিনিয়ে নিয়েছে বলে মামলায় উল্লেখ করা হয়েছে।

 

এ ঘটনায় জাহানাবাদ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ হযরত আলী বলেন, বিষয়টি শোনার পর উক্ত মহিলা সদস্য কে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার জন্য থানায় যাবার জন্য পরামর্শ দেয়া হয়েছে।

 

এদিকে এই বিষয়ে মোহনপুর থানার ওসি তহিদুল ইসলাম বলেন, হাওড়া শুনে ল্যাওড়া এই বিষয়ে থানায় একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করা হয়েছে ওই নারীকে পরীক্ষার জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে এবং আসামীদেরকে গ্রেপ্তারের জন্য অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Related posts

Leave a Comment