পুঠিয়ায় আশ্রয়ন প্রকল্পে সাব মারর্সেবল পাম্পের কাজেও অনিয়মের অভিযোগ

Prothom alo news

পুঠিয়া (রাজশাহী) প্রতিনিধি: মুজিব জন্মশত বর্ষ উপলক্ষে ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারকে জমি ও গৃহ প্রদান প্রকল্পে রাজশাহীর পুঠিয়ার কান্দ্রা গুচ্চুগ্রামে আশ্রয়ন প্রকল্পে সাব মারর্সেবুল পাম্প বসানোর কাজে অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। পানির ট্যাংকি রাখার গোল ঘরে নিম্ন মানের ইট দিয়ে কাজ করা, কাজ সম্পন্ন করার আগেই ঢালায়ে সিমেন্ট ব্যবহার কম করায় ভেঙ্গে যাওয়া এবং ট্যাকিং রাখার স্লাবে সিমেন্ট ব্যবহার কম করায় ভেঙ্গে যাওয়া ঘটনা ঘটেছে।

উপজেলা জনস্বাস্থ্য প্রকৌশলী দপ্তরের সহকারী প্রকৌশলী মেহেদী হাসান জানান, রাজশাহী জেলার কয়েকটি উপজেলায় আশ্রয়ন প্রকল্পে সাব মারর্সেবুল পাম্প বসানোর টেন্ডার প্রাপ্ত হয়ে রাজশাহীর ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান জায়েদা কনেঃ এর প্রোঃ আজিজুল ইসলাম এই কাজ করছেন। তারই ধারাবাহিকতায় রাজশাহী জেলার পুঠিয়া উপজেলার কান্দ্রা গুচ্চুগ্রামে আশ্রয়ন প্রকল্পে ১৫ টি সাব মারর্সেবুল পাম্প বসানোর কাজ করছেন তারা। তবে কত টাকায় টেন্ডার প্রাপ্ত হয়েছে সেই বিষয়টি তিনি জানাতে পারেননি।

ঘটনস্থালে গিয়ে জানা গেছে, সাব মারর্সেবুল পাম্প বসানোর কাজ শুরু করে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান। কাজের শুরু থেকে নিম্ন মানের কালার ইট ব্যবহার করছে। কাজ শেষ করার আগেই ঢালায়ে সিমেন্ট কম ব্যবহার করায় নিচের ঢালাই ভেঙ্গে গেছে। শুধু তাই নয়, পানির ট্যাংকি বসানোর স্লাবটিও বিভিন্ন জায়গা ভেঙ্গে যাচ্ছে এবং ফাটল দেখা দিয়েছে। কাজ শেষ হওয়ার আগেই যদি এই পরিস্থিতি দেখা দেয় তাহলে সেগুলো কত দিন টেক সই হবে। তাই বিষয়টি তদন্ত পূর্বক ব্যবস্থা নেওয়া দাবী জানিয়েছেন স্থানীয়রা।

রাজশাহীর ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান জায়েদা কনেঃ এর প্রোঃ আজিজুল ইসলামের মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করেও বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

উপজেলা জনস্বাস্থ্য প্রকৌশলী দপ্তরের সহকারী প্রকৌশলী মেহেদী হাসান জানান, সিডিউল মোতাবেক ভালো মানের ১ নং ইট দিয়ে কাজ করা হচ্ছে। কাজটি চলমান রয়েছে। যেগুলো সমস্যা হয়েছে তা সমাধান করা হবে।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার নুরুল হাই মোহাম্মদ আনাছ জানান, বিষয়টি তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Related posts

Leave a Comment