রাজশাহীতে অস্ত্রের মুখে অটোরিকশা আটকিয়ে ছাত্রীকে ধর্ষণ ও ছিনতাই

প্রথম আলো

মোস্তাফিজুর রহমান জীবন রাজশাহীঃ বিডি নিউজ২৩/BD News23: রাজশাহীর পুঠিয়ায় পথচারি প্রতিবন্ধী স্কুলছাত্রী ধর্ষণের শিকার হয়েছেন। এ সময় ধর্ষণকারিরা তার মোবাইল ফোন ও টাকা ছিনিয়ে নিয়ে গেছে। বুধবার রাত সাড়ে ৮ টার দিকে উপজেলার কাচুপাড়া কলা বাগানের মধ্যে এ ঘটনা ঘটে। পরে স্থানীয় লোকজন তাকে উদ্ধার করে পুঠিয়া থানায় পাঠায়।

ধর্ষণের শিকার ওই ছাত্রী জানায় তার বাড়ি রাজশাহীর বাগমারা উপজেলার তাহেরপুর পৌরসভার কোয়ালিপাড়া। তিনি জামগ্রাম টেকনিক্যাল স্কুল এন্ড কলেজের দশম শ্রেণীর ছাত্রী। তার এক পায়ে সমস্যা থাকায় খুড়িয়ে হাটেন।

ওই ছাত্রীকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যাওয়া স্থানীয় মাসুম হোসেন নামের এক ব্যক্তি জানান,মেয়েটি কাঁদতে কাঁদতে বেগার মোড়ে যায়। এ সময় স্থানীয় লোকজন বিষয়টি জানতে চাইলে তিনি ছিনতাই ও ধর্ষণের বিষয়টি জানায়।

মেয়েটি জানায়,সকালে কাচুপাড়ার এক আত্মীয়র বাড়ি বেড়াতে যায়। ইফতারের পর একটি ব্যাটারি চালিত রিকশা ভ্যান যোগে তিনি বাড়ি ফিরছিলেন।তার ভ্যানে আরও দুইজন যাত্রী ছিলো।

এ সময় কাচুপাড়া মাঠের মধ্যে থেকে বাহির হয়ে  ৫/৬ জন ধারলো অস্ত্র নিয়ে তাদের ভ্যানের গতি রোধ করে। এ সময় সবার কাছ থেকে টাকা ও মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নেয়।

এর পর অস্ত্রের মুখে সবাইকে তাড়িয়ে দিয়ে এই মেয়েটিকে তুলে নিয়ে মাঠের পাশে একটি কলা বাগানে নিয়ে যায়। সেখানে তাকে ধর্ষণ করা হয়। পরে তারা মেয়েটিকে সেখানে রেখে চলে গেলে একা বাজারে এসে লোকজন দেখে কান্না শুরু করে। পরে সেখান থেকে তাকে থানায় পাঠানোর ব্যবস্থা করা হয়।

পুঠিয়া থানার ওসি সোহরাওয়ার্দী হোসেন বলেন, স্থানীয় লোকজনের মাধ্যমে মেয়েটি থানায় এসেছে। তার কাছে বিস্তারিত শুনার পর সাথে সাথে ঘটনাটি যাচাইসহ এর সঙ্গে জড়িতদের শনাক্ত ও তাদের গ্রেপ্তার করতে পুলিশ অভিযান শুরু করেছে। এ ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রক্রিয়া চলছে।

(বিশেষ দ্রষ্টব্য) ছবিটি কেবলমাত্র শুধুমাত্র প্রতীকী হিসেবে ব্যবহার করা হয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Related posts

Leave a Comment