ডিসির গাড়ি চালককে মারধর করলেন ২ পুলিশ কনস্টেবল

BD News23

বিডি নিউজ২৩/BD News23: গাজীপুরের জেলা প্রশাসকের গাড়ি চালক হিরা মিয়াকে ট্রাফিক পুলিশের মারধরের ঘটনায় রাজবাড়ি সড়ক অবরোধ ও বিক্ষোভ করেছে জেলা প্রশাসন কার্যালয়ের পরিবহন পুলের চালক ও কর্মচারিরা।

 

রবিবার বেলা ১২টার দিকে শহরের রাণী বিলাসমনি বালক উচ্চ বিদ্যালয় সংলগ্ন মোড়ে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় দুই ট্রাফিক পুলিশ কনস্টেবলকে ক্লোজ করা হয়েছে। অভিযুক্তরা হলেন কনস্টেবল ইউসুফ আলী ও নুর মোহাম্মদ।

 

প্রত্যক্ষদর্শীসহ বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে, গাজীপুরের জেলা প্রশাসনের স্টিকার যুক্ত গাড়ি যোগে তার দুই শিশু মেয়েকে স্কুল থেকে নিয়ে বাসায় ফিরছিলেন চালক হিরা মিয়া। বেলা ১২টার দিকে তার গাড়িটি শহরের রাণী বিলাসমনি বালক উচ্চ বিদ্যালয় মোড়ে এসে পৌঁছালে কর্তব্যরত ট্রাফিক পুলিশ ওই গাড়িটি ঘুরিয়ে অন্য রাস্তা দিয়ে যেতে বলেন।

 

চালক হিরা মিয়া ট্রাফিক পুলিশকে জানান গাড়িতে জেলা প্রশাসকের দুই মেয়ে রয়েছে। এ নিয়ে কথা কাটাকাটির জেরে ট্রাফিকের এক পুলিশ সদস্য ডিসির গাড়িতে লাঠি দিয়ে আঘাত করতে থাকে। এসময় চালক হিরা মিয়া প্রতিবাদ করলে লাঠি দিয়ে তাকেও আঘাত করে এবং তাকে টেনে হিঁচড়ে গাড়ি থেকে নামাতে চায় দুই পুলিশ কনস্টেবল ইউসুফ ও নুর মোহাম্মদ। পরে চালক গাড়িটি ঘুরিয়ে ডিসির বাসভবনে চলে যান।

 

এদিকে জেলা প্রশাসকের গাড়ি চালককে পুলিশ কর্তৃক মারধরের ঘটনার খবর পেয়ে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সকল কর্মচারীরা রাস্তায় নেমে আসে। তারা বিক্ষোভ মিছিল সহকারে রাজবাড়ি সড়ক অবরোধ করে পুলিশের বিরুদ্ধে নানা স্লোগান দিয়ে বিক্ষোভ করতে থাকে। তারা আধাঘন্টা ব্যাপী ওই সড়ক অবরোধ করে রাখে। পরে প্রশাসকের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা কর্মচারিদের বুঝিয়ে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের অভ্যন্তরে নিলেও তারা কার্যালয়ের গেট দিয়ে কোন পুলিশ সদস্যকে ভেতরে আসতে বা যেতে দিচ্ছেন না।

 

গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের উপ-কমিশনার (ট্রাফিক) আব্দুল্লাহ আল মামুন জানান, গাড়ি চালকের সাথে ট্রাফিক পুলিশের একটি ভুল বুঝাবুঝি হয়েছিল। ইতোমধ্যে অভিযুক্ত দুই পুলিশ কনস্টেবলকে ক্লোজ করে পুলিশ লাইনে সংযুক্ত করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Related posts

Leave a Comment