কিস্তি দিতে না পারায় গৃহবধূকে এনজিও কর্মীর মা’রধর

BD NEWS23 বিডি নিউজ২৩ঃ রাজশাহীর, বাগমারা উপজেলায় ভবানীগঞ্জ পৌরসভার, ভবানীগঞ্জ নিউ মার্কেট এর তৃতীয় তলায় “সোনার বাংলা” নামের এক এনজিও অফিস। সোনার বাংলা এনজিওর কর্মকর্তা ও কর্মচারী এর বি’রুদ্ধে অ’ভিযোগ উঠেছে যে তাদের কাছ থেকে ঋণ নেয়া এক গৃহবধূর ওপর মা’রধ’র করা হয়েছে।

পরে স্থানীয় একজন ইউপি সদস্য ফাতেমা বেগম ও বাজারের মানুষের সহায়তায় “সোনার বাংলা” থেকে ঋণ নেয়া ওই গৃ’হব’ধূকে উ’দ্ধার করে নিয়ে আসা হয়। নি’র্যাত’নের শি’কার ওই ভু’ক্তভোগীকে পরে বাগমারা মে’ডিকে’লে ভর্তি করা হয়।

এদিকে এই ঘ’টনার পরিপ্রেক্ষিতে বাগমারা থা’নায় গত মঙ্গলবার রাতে একটি এজাহার দা’য়ের করা হয়েছে বলে জানা যায়।

এছাড়াও পু’লিশের নিকট অ’ভিযোগ সূত্রে ও স্থানীয় লোকজনের মাধ্যমে জানা যায় যে, গত মঙ্গলবার বাসাপাড়া ইউনিয়নের নন্দন পুর গ্রামের আক্কাস আলীর স্ত্রী মোসাম্মৎ বানু বিবি ভবানীগঞ্জ নিউ মার্কেট অবস্থিত ‘সোনার বাংলা” এনজিও তে কিস্তির টাকা দিতে আসেন। বানু বিবি উক্ত এনজিও থেকে মোট ৫০ হাজার টাকা নিয়েছিলেন বলে জানা যায়। মঙ্গলবার সকালে ৩০ হাজার টাকা নিয়ে “সোনার বাংলা” এনজিও তে জমা দিতে যান এবং টাকা জমা দিয়ে সেখান থেকে টাকার রশিদ চাইলে, টাকা দেওয়ার রশিদ না দিতে অস্বীকৃতি জানায় ‘সোনার বাংলা”র লোকজন। উল্টো এনজিওর লোকজন বানু বিবিকে আরো টাকা আদায়ের লক্ষ্যে দিনভর একটি কক্ষে আ’টকে রাখে এবং সাদা কাগজে সই নেয়।

এছাড়াও থা’নায় অ’ভিযোগকারী বানু বিবির পুত্র মোঃ রুবেল হোসেন বলেন, গত দুই বছর আগে সোনারবাংলা নামক এনজিও থেকে ৫০ হাজার টাকা ঋণ নিয়ে ছিলেন। ঋণ নেয়ার পরপরই আমার আব্বা অ’সুস্থ হয়ে পড়েন এবং পঙ্গুত্ব বরণ করেন। সে সময় টাকা পরিশোধ করতে ব্যর্থ হয় পরবর্তীতে বিভিন্ন সময়ে “সোনার বাংলা” এনজিও কর্তৃপক্ষ আমাদেরকে টাকা পরিশোধের জন্য চা’প প্র’য়োগ করতে থাকেন। এরপর খুব কষ্ট করে ৩০ হাজার টাকা সংগ্রহ করে মা,র হাতে তুলে দিই। মা, সে টাকা নিয়ে “সোনার বাংলা” এনজিও অফিসে গেলে তাকে আরো টাকা নেয়ার জন্য আ’টকে রা’খে এবং শা’রীরি’ক নি’র্যাত’ন করেন।

বানু বিবির পুত্র আরো বলেন, তাদের সাথে কথা হয়েছিল ৩০ হাজার টাকা দিয়ে অবশিষ্ট যে টাকা তারা পাবেন সে টাকাগুলো ভেঙ্গে ভেঙ্গে কিস্তি হিসেবে পরিশোধ করতে থাকবে এ মর্মে আমি আমার মাকে ৩০ হাজার টাকা নিয়ে তাদের কাছে পাঠায় কিন্তু তারা টাকা নিয়ে আমার মা,কে শা’রীরিকভাবে নি’র্যাত’ন করে আর সাদা কাগজে সই করে নেয়। আমার মা এসবের প্রতিবাদ করা শুরু করলে তখন আমার মা,য়ের উপর চ’ড়াও হয় এনজিও’র পরিচালক জাহাঙ্গীর আলম এবং মাঠকর্মী আশরাফুল ইসলাম আমার মা,কে কি’ল-ঘু’সি চড়-থা’প্পড় এবং সিঁড়ি থেকে ধা’ক্কা দিয়ে ফেলে দিয়ে দারুন রকম আহত করেন। এমনটাই বলছিলেন ভু’ক্তভোগী বানু বিবির ছেলে রুবেল হোসেন।

এদিকে ইউপি সদস্য ফাতেমা বেগম তিনি বলেন, এ ধরনের ঘ’টনা অবশ্যই অ’মানবিক। আমি খবর পেয়ে খুব দ্রুত ঘ’টনাস্থ’লে ছুটে যাই এবং নিচে যেয়ে দেখি অ’সুস্থ অ’বস্থায় ভু’ক্তভো’গী বানু বিবি কান্নাকাটি করছে। তাকে খুব দ্রু’ত উ’দ্ধার করে বাগমারা মে’ডিকেলে ভর্তি করাই।

এদিকে এনজিও “সোনার বাংলা”র পরিচালক মোঃ জাহাঙ্গীর আলম তিনি বলেন, ২০১৮ সালে আমাদের কাছ থেকে ঋণ নেয় বানু বিবি।। তিনি ঋণ পরিশোধ করেননি। কাকে কোনো তাগাদাও দেয়া হয়নি, মা’রধ’রও করা হয়নি। অ’ভিযোগের কোনো সত্যতা নেই। অ’ভিযোগটি সম্পূর্ণ বা’নোয়াট মি’থ্যা ও ভি’ত্তিহীন।

এই বিষয়ে বাগমারা থা’নার এসআই ইমরান জানান, এই সংক্রান্ত একটি অ’ভিযোগ পেয়েছি। অ’ভিযোগের ত’দন্ত করে বিষয়টির উপর যথাযথ গুরুত্ব দিয়ে আ’ইনগ’ত ব্য’বস্থা নে’য়া হবে।

বিডি নিউজ২৩ এর পক্ষ থেকে করোনা সাবধানতাঃ এই ভাইরাস থেকে একটু রক্ষা পেতে চাইলে অবশ্যই জনসমাগম এড়িয়ে চলতে হবে। মুখে মাস্ক ভালোভাবে ব্যবহার করার কোনো বিকল্প পথ নেই। নিজে সতর্ক থাকতে হবে অন্যকেও সতর্ক ভাবে রাখতে হবে। যতোটুকু সম্ভব হয় বাহিরে যাওয়া একদম কমিয়ে দিতে হবে। বাহিরে না গেলেই সবচেয়ে ভালো। পাশাপাশি যত দ্রুত সম্ভব করোনা ভাইরাসের টিকা গ্রহণ করুন। BD NEWS23 বিডি নিউজ২৩.

কিস্তি দিতে না পারায় গৃহবধূকে এনজিও কর্মীর মা'রধর
কিস্তি দিতে না পারায় গৃহবধূকে এনজিও কর্মীর মা’রধর
শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *