আব্দুল কাদের জিলানীর কারণে কি বাগদাদে কবর আজাব মাফ?

BD NEWS23 বিডি নিউজ২৩ঃ উত্তর: আব্দুল কাদের জিলানীর কারণে বাগদাদ শহরের কবর আজাব মাফ” এটি মিথ্যাবাদী সুফি বিদআতি দজ্জালদের জঘন্য মিথ্যাচার। যে মদিনা মুনাওয়ারায় স্বয়ং আল্লাহর রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম এবং তাঁর অসংখ্য সাহাবীর কবর আছে সেখানকার ব্যাপারে এমন কথা বলা হয় নি। পৃথিবীর শ্রেষ্ঠ ও সবচেয়ে মর্যাদপূর্ণ শহর মক্কা মুকাররমায় বহু সাহাবীর কবর আছে তারপরও সেখানকার ব্যাপারে এমন কথা বলা হয় নি। তাহলে ‘আব্দুল কাদের জিলানী রহ. এর কারণে বাগদাদের কবর আজাব মাফ’ এমন কথা বলা কিভাবে সম্ভব হতে পারে?!

তাছাড়া আব্দুল কাদের জিলানী রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম এর ইন্তেকালের প্রায় সাড়ে চারশত বছর পরে জন্মগ্রহণ করেছেন। তাহলে আল্লাহর রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম এর ইন্তেকালের পরে আল্লাহর ওহী ছাড়া কোথায় কবরের আজাব মাফ এমন গায়েব বা অদৃশ্য সম্পর্কে কথা বলার দু:সাহস আর কার আছে?মনে রাখা আবশ্যক যে, কবরের আজাব থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য শিরক মুক্ত বিশুদ্ধ আকীদা এবং কুরআন-সুন্নাহ নির্ভর বিদআত মুক্ত আমল থাকা অপরিহার্য।

সুতরাং একজন ইমানদারের মধ্যে যখন শিরক মুক্ত ঈমান এবং বিদআত মুক্ত আমল পাওয়া যাবে তখন তার আখিরাতের মুক্তির আশা করা যায়। আশা করা যায়, সে কবরের ফেরেশতাদের প্রশ্নের উত্তর দিতে সক্ষম হবে এবং আল্লাহ তাআলা কবরে তাকে কিয়ামত পর্যন্ত শান্তি ও নিরাপত্তার সাথে রাখবেন।
(তৎসঙ্গে হাদিসে বর্ণিত কবরের আজাব থেকে রক্ষা পাওয়ার বিশেষ আমলগুলো করা উচিৎ) পক্ষান্তরে এ দুটি বিষয় না থাকলে মুক্তির কোন সম্ভাবনা নাই। এগুলো ব্যতিরেকে কেউ ফেরেশতাদের প্রশ্নের উত্তরও দিতে সক্ষম হবে না। ফলে সে কিয়ামত পর্যন্ত ভয়াবহ শাস্তির সম্মুখীন হবে-তার কবর যেখানেই হোক না কেন।

(সেই সাথে যে সব কারণে কবরের আজাব হয় বলে হাদিসে এসেছে সেগুলো থেকে দূরে থাকতে হবে) আল্লাহ আমাদেরকে ক্ষমা করুন।
এ বিষয়গুলো কুরআন-সুন্নাহ বহু দলিল দ্বারা সুপ্রমাণিত।

বিশুদ্ধ ঈমান ও নেক আমল ছাড়া কেবল ‘বিশেষ স্থানে’ কবর থাকার কারণে কবরের আজাব মাফ হওয়ার বিশ্বাস কুরআন-সুন্নাহ ও বিশুদ্ধ আকীকা পরিপন্থী। সুতরাং উপরোক্ত কথাটি যে ১০০% মিথ্যা ও ভিত্তিহীন কথা তাতে কোনও সন্দেহ নাই। এ জাতীয় বিশ্বাস পোষণ করা সম্পূর্ণ হারাম।

আল্লাহ আমাদেরকে ক্ষমা করুন। আমীন। প্রশ্ন: বাকি গোরস্থানে কবর দেয়া হলে কি কবরের আজাব মাফ হবে? উত্তর: না, এ বিষয়ে কোন সহিহ হাদিস সাব্যস্ত হয় নি। তবে “বাকি গোরস্থানে কবর দেয়া হয়েছে এমন সত্তর হাজার মানুষ বিনা হিসেবে জান্নাতে প্রবেশ করবে..যাদের মুখমণ্ডল হবে চৌদ্দ তারিখের পূর্ণিমা চাঁদ সদৃশ” মর্মে একটি হাদিস পাওয়া যায়। কিন্তু মুহাদ্দিসগণ বলেছেন, এটি মুনকার বা মারাত্মক দূর্বল। হাদিসটি হল:

أمَّ قيسٍ تَرينَ هذِه المقبرةَ يبعثُ اللهُ منها سبعينَ ألفًا، يومَ القيامَةِ علَى صورةِ القمرِ ليلةَ البدر، يدخلونَ الجنَّةَ بغيرِ حسابٍ كأنَّ وجوهَهمُ القمَرُ ليلةَ البدرِ. فقامَ عُكاشةُ فقالَ: وأنا يا رسولَ اللَّهِ ؟ قال: وأنتَ. فقامَ آخرُ فقال: وأنا يا رسولَ اللَّهِ؟ قال: سبقَك بِها عُكاشةُ .الراوي:أم قيس بنت محصن المحدث:الألباني المصدر:السلسلة الضعيفة الجزء أو الصفحة:5491 حكم المحدث:منكر

উত্তর প্রদানে: আব্দুল্লাহিল হাদী বিন আব্দুল জলীল দাঈ, জুবাইল দাওয়াহ সেন্টার, সৌদি আরব আল্লাহ যেন আমাদের সঠিক দিনের পথ দেখায় আমিন ছুম্মা আমিন

বিডি নিউজ২৩ এর পক্ষ থেকে করোনা সাবধানতাঃ এই ভাইরাস থেকে একটু রক্ষা পেতে চাইলে অবশ্যই জনসমাগম এড়িয়ে চলতে হবে। মুখে মাস্ক ভালোভাবে ব্যবহার করার কোনো বিকল্প পথ নেই। নিজে সতর্ক থাকতে হবে অন্যকেও সতর্ক ভাবে রাখতে হবে। যতোটুকু সম্ভব হয় বাহিরে যাওয়া একদম কমিয়ে দিতে হবে। বাহিরে না গেলেই সবচেয়ে ভালো। পাশাপাশি যত দ্রুত সম্ভব করোনা ভাইরাসের টিকা গ্রহণ করুন। BD NEWS23 বিডি নিউজ২৩.

আব্দুল কাদের জিলানীর কারণে কি বাগদাদে কবর আজাব মাফ?
আব্দুল কাদের জিলানীর কারণে কি বাগদাদে কবর আজাব মাফ?
শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *