একই পৌরসভার ভোট যুদ্ধে বউ-শাশুড়ি!

মোস্তাফিজুর রহমান জীবন (বিডিনিউজ২৩ঃ) ছেলের বউ ও শাশুড়ি এতদিন শুনেছিলেন ঘরের ভিতর যুদ্ধ এখন বউ শাশুড়ির যুদ্ধ ঘর ছেড়ে ভোটের মাঠে। বগুড়া পৌরসভার ৪ নম্বর সংরক্ষিত মহিলা নারী আসনে বেধেছে শাশুড়ি ও ছেলের বইয়ের মধ্যে ভোটের যুদ্ধ।

 

বর্তমান মহিলা কাউন্সিলর খোদেজা বেগম তার নিজের ছেলের বউ বিপরীতে দাঁড়িয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। মানুষের প্রশ্ন কে কতটা অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগিয়ে ভোট যুদ্ধে যেতে পারে তা দেখতে হলে অপেক্ষা করতে হবে এই মাসের ২৮ তারিখ পর্যন্ত। শাশুড়ি গত ৩ বার নির্বাচিত হয়ে এলাকার জনগণের সেবা দিয়ে আসছিলেন। পাশে ছিলেন বর্তমান কাউন্সিলর পদপ্রার্থী ছেলের বউ।

 

শাশুড়ি এর সাথে থেকে নির্বাচন করা অনেকটা পথ ঘাট আর অভিজ্ঞতা হয়ে গেছে এতে মধ্যেই তার ছেলের বউয়ের। তাই কোথায় গেলে ভোটের খোঁজ পাওয়া যাবে সেভাবেই দিনরাত চোষে বেড়াচ্ছেন বউ শাশুড়ি দুজন দুদিকে।

 

বগুড়া পৌরসভায় এ ঘটনায় অনেকটাই মানুষদের মধ্যে আনন্দের একটা পরিবেশ দেখা যাচ্ছে ভোটের মাঠে অনেকেই যেতে না চাইলেও এই ঘটনার কারণে উৎসব ও উৎসুক হয়ে রয়েছেন অনেক ভোটাররাই।

 

এদিকে বর্তমান সংরক্ষিত মহিলা আসনের নারী কাউন্সিলর খোদেজা বেগম তিনি বলছেন, পারিবারিকভাবে একটু মনোমালিন্য থাকায় আমার ছেলে আমার ছেলের বউকে আমার বিরুদ্ধে দাঁড় করিয়ে দিয়েছে তবে এ নিয়ে আমি কোনভাবেই চিন্তিত নয় কারণ আমি সেবা দিয়ে আসছে বেশ কিছু বছর তাই মানুষ আমাকে ভোট দিবে আর আমি জয়লাভ করবো এমনটাই আশা করছেন শাশুড়ি খোদেজা বেগম।

 

এদিকে ছেলের বউ তিনি বলছেন, বিগত ১৭ বছর তিনবার আমি শ্বাশুড়ীর সাথে ভোট করেছি সে কারণে কোথায় ভোট আছে সেটা আমার জানা আছে তাই আমি আমার ভোটব্যাংকে ভোট চালাতে সক্ষম হব শাশুড়িকে হারিয়ে আমি এবার নারী কাউন্সিলর নির্বাচিত হবে এমনটাই আশা করছেন বগুড়া পৌরসভার ৪ নম্বর সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর প্রার্থী। এছাড়াও বর্তমান কাউন্সিলর খোদেজা বেগম এর ছেলে তিনি বলছেন আমার মা বলেছিল আমি, ভোট করবো না তোমার বউকে দিয়ে আমার জায়গায় ভোট করাবো হঠাৎ করে আমার মা ভোটের কিছুদিন আগে ভোট করার সিদ্ধান্ত নেয় তাতেই বেধে যায় মনমালিন্য।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *